1. admin@sottosongbad.com : admin :
এবার নারীকে অর্ধনগ্ন করে ভিডিও ধারণ - রংপুর বার্তা
শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ০৪:৫৯ পূর্বাহ্ন

এবার নারীকে অর্ধনগ্ন করে ভিডিও ধারণ

  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ২ আগস্ট, ২০২২
  • ৭৬ বার পঠিত

এবার নারীকে অর্ধনগ্ন করে ভিডিও ধারণ

নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ

নোয়াখালীর কবিরহাট উপজেলায় এবার এক নারীকে অর্ধনগ্ন করে নির্যাতনের ভিডিও ধারণের ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

এ সময় অভিযুক্তরা ওই নারীর দ্বিতীয় স্বামীকেও অর্ধনগ্ন করেন। একই সঙ্গে তাদের ঘর থেকে নগদ টাকাসহ বিভিন্ন জিনিস লুট করে নিয়ে গেছে বলে জানা যায়।

উপজেলার ধানশালিক ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডে গত ২৬ জুলাই সোমবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।
তবে ঘটনার ৬ দিন অতিবাহিত হলেও দরিদ্র পরিবারটি ভয়ে মামলা করেনি। আতঙ্কিত হয়ে বর্তমানে তারা নিজেদের বাড়ি থেকে সরে গিয়ে অনত্র বসবাস করছেন বলে জানিয়েছে পরিবারটি।

তথ্য নিশ্চিত করে কবিরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘এটি গত ২৬ তারিখের ঘটনা। ধামাচাপার বিষয় নেই। স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও সদস্যরা ঘটনা আমাকে বলেছেন। ওই নারীর স্বভাবচরিত্র জানতে হবে।’

৪১ বছর বয়সী ওই গৃহবধূ ও তার পরিবারের ভাষ্য মতে অভিযুক্তরা হলেন কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চর এলাহী ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোস্তাফিজুর রহমানের ছোট ভাই ৩২ বছরের আবু বক্কর ছিদ্দিক তানভির, একই ওয়ার্ডের ৩২ বছরের ওমর ফারুক, ৩০ বছরের রাজন ও আজু মিয়ার বাড়ির ২৫ বছরের মো. আলতাফ।

গৃহবধূর ১৮ বছরের মেয়ে অভিযোগ করে বলেন, ‘ওই দিন রাত ১২টার দিকে পরিবারের সব সদস্য ঘরেই ছিলেন। এ সময় তানভির, ফারুক, রাজন, আলতাফ ও তাদের অনুসারীরা আমাদের ঘরের দরজায় লাথি মারে। দরজা খুলে দিলে তারা ঘরে ঢুকে কামাল আঙ্কেলকে (গৃহবধূর দ্বিতীয় স্বামী) বেধড়ক মারধর করে ৮ হাজার টাকা ও ৩টি মোবাইল ছিনিয়ে নেন।

‘এরপর হামলাকারীরা দুই লাখ টাকা দাবি করেন। টাকা দিতে না পারায় তারা গোয়ালঘর থেকে আনুমানিক ৮০ হাজার টাকা দামের বাছুরসহ একটি গাভী লুট করে নিয়ে যান। একপর্যায়ে আমাকে ও আমার বোনকে তারা তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। না পেরে তারা আমার মাকে অর্ধনগ্ন করে ভিডিও ধারণ করে চলে যান। এরপর থেকে ভয় ও আতঙ্কে আমরা ওই বাড়ি ছেড়ে অন্যত্র অবস্থান করছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমার বাবার সঙ্গে বিয়েবিচ্ছেদের পর মা কামাল আঙ্কেলকে বিয়ে করেন। আমার বাবা বৃদ্ধ হওয়ায় আমরা তাকে ছেড়ে যাইনি। কামাল আঙ্কেল, মা, বাবা, ভাই-বোন আমরা সবাই একসঙ্গে বসবাস করছি। তিন মাস আগে কামাল চাচার সঙ্গে আমার মায়ের বিয়ে হয়, কিন্তু সামাজিকভাবে বিষয়টি কাউকে জানানো হয়নি।’

ভুক্তভোগী ওই গৃহবধূ বলেন, ‘ঘটনার পর স্থানীয়রা আমাদের বাড়ি ছেড়ে চলে যেতে বলেন, মেরে ফেলার হুমকি দেন। প্রাণে বাঁচতে কামাল, আমার মেয়ে ও দুই ছেলেকে নিয়ে ভাড়া বাসায় উঠেছি। ভয়ে আমরা কারও কাছে অভিযোগ করিনি। অভিযোগ করলে তারা আমাদের মেরে ফেলবে।’

এ বিষয়ে অভিযুক্ত আবু বক্কর ছিদ্দিক তানভির বলেন, ‘ওই নারী একই বাড়িতে দুই স্বামীর সঙ্গে বসবাস করছেন। এ কারণে স্থানীয়রাসহ আমরা তাদের ধরে বিষয়টি ইউপি সদস্যদের জানাই। ভিডিও ধারণ, টাকা, মোবাইল ও গরু লুটের সঙ্গে আমি জড়িত নই।’

এ বিষয়ে ওসি রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘এ ঘটনায় এখনও কেউ থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়নি। ঘটনা শোনার পর পুলিশ সেখানে গিয়েছিল। স্থানীয় চেয়ারম্যান ও মেম্বার আমাদের বলেছেন, ওই নারীর চরিত্র খারাপ। তিনি দুই স্বামী নিয়ে একই ঘরে বাস করেন।
‘আমরা ওই নারীকে থানায় আসতে বলেছি। তার কাছ থেকে শুনে ব্যবস্থা নেব।’

এর আগে ২০২০ সালের ২ সেপ্টেম্বর বেগমগঞ্জের একলাশপুরে ঘরে ঢুকে এক নারীকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ভিডিও ধারণ করা হয়। সে ভিডিও ৪ অক্টোবর ফেসবুকে ভাইরাল হলে দেশজুড়ে আলোড়ন হয়। এ ঘটনায় আন্দোলনের মুখে সরকার ধর্ষণের সর্বোচ্চ সাজা যাবজ্জীবন কারাদণ্ড থেকে বাড়িয়ে মৃত্যুদণ্ড করে।

বেগমগঞ্জের ওই নারী সে সময় নয়জনের নামে দুটি মামলা করেন। একটি নির্যাতনের মামলা, অন্যটি পর্নোগ্রাফি আইনে করা। পরে ধর্ষণের অভিযোগে আরেকটি মামলা করা হয়। ধর্ষণের মামলায় একই আদালত গত ৪ অক্টোবর দুই আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত  রংপুর বার্তা- ২০২২
Theme Customized By Dev Joynal