1. admin@sottosongbad.com : admin :
দহগ্রামে অবৈধভাবে পারাপারকালে ১৪ গরু আটক - রংপুর বার্তা
বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:১০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
সুন্দরগঞ্জ উপজেলা পুষ্টি সমন্বয় কমিটির সভা হাতীবান্ধায় ভুয়া বিল ভাউচার দিয়েই প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সরকারি টাকা আত্বসাৎ পা দিয়ে লিখে জিপিএ ৫ পেয়েছে ফুলবাড়ীর মানিক বারহাট্টায় বিএনপির ২৬২ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা -আটক ১ পাটগ্রামে কর্মসৃজন প্রকল্প কাজের উদ্বোধন আগামী ১ জানুয়ারি থেকে শুরু হচ্ছে ২৭তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা চাকরি দেয়ার জন্য টাকা নিয়ে অন্যজনকে নিয়োগ, মাদ্রাসায় তালা সুন্দরগঞ্জ বাজার দোকান মালিক সমিতির নির্বাচনে-সভাপতি-মিজান, সম্পাদক-লেলিন হাতীবান্ধায় সীমান্তে এক যুবককে বিএসএফের বন্দুকের বাট দিয়ে পিটিয়ে মারার অভিযোগ হানিফ কোচের ধাক্কায় সড়কে প্রাণ গেল বাবা-মা ও মেয়ের

দহগ্রামে অবৈধভাবে পারাপারকালে ১৪ গরু আটক

  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২২
  • ২৮ বার পঠিত

মিঠু মুরাদ, পাটগ্রাম (লালমনিরহাট) প্রতিনিধিঃ
লালমনিরহাট পাটগ্রাম দহগ্রাম ইউনিয়নে গরুর সিন্ডিকেট কর্তৃক স্লিপ বানিজ্য ঘিরে রয়েছে নানা অভিযোগ। গরু পারাপারের সময় গরুর প্রকৃত মালিককে এসময় করিডোরে প্রায়ই দেখা যায় না।

অবৈধ পথে দহগ্রামের বিভিন্ন সীমান্ত দিয়ে অবাধে ভারতীয় গরু ঢুকছে। যদিও দহগ্রাম সীমান্তে বৈধভাবে গরু আনতে করিডর রয়েছে। করিডরে প্রতিটি গরুর জন্য রাজস্ব আদায় করে বৈধতা দেয়া হয়। তবে রাজস্ব ফাঁকি দিতে চোরাকারবারিরা করিডর দিয়ে অবৈধ ভাবে গরু আনছেন।

এসব নানা অভিযোগের সত্যতা খুঁজতে পাটগ্রাম উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাজমুল হক সুমন ও সহকারি কশিশনার ভূমি মাহমুদুল হাসান। আজ বুধবার (২৩ নভেম্বর) বিকেলে আলোচিত তিনবিঘা করিডোর গেইটে সরেজমিনে গিয়ে হাজির হন।

বিজিবির কাছে জমাকৃত খতিয়ান ও প্রকৃত কৃষকের খাতাপত্র যাচাই-বাছাইের এক পর্যায়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নিজেই এসবের ভিতর গড়মিল খুঁজে পান। অধিকাংশ গরুর মালিককে এসময় পাওয়া যায়নি।

তথ্য সুত্রে জানা যায়, ৩০ টি গরু থেকে ৩ টি গরুর মালিককে পেলেও বাস্তবে অমিল থাকায় সেগুলো সিজারের তালিকায় নেওয়া হয় এবং ১৩ টি গরুর মালিককে না পেয়ে আপাতত ফেরত দিয়ে হেফাজতে রাখা হয়।

এছাড়াও আরও ১৪ টি গরু বিভিন্ন বাড়ি থেকে জব্দ করে সিজারের আওতাভুক্ত করা হয়। এসময় ইউনিয়ন চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান ও বিজিবির কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

তিনবিঘা করিডোর হয়ে বাংলাদেশের মুল ভূখণ্ডে প্রতি শনিবার ও বুধবার বিজিবি-বিএসএফ’র তত্তাবধানে গরু পার হয়ে আসে মোট ষাটটি। এদের মধ্যে বেশিরভাগ গরু আসে চোরাই পথে। পরে এগুলো ঘিরে তৈরী হয় সিন্ডিকেট, চলে স্লিপ বানিজ্য। যে বানিজ্যে জড়িত অধিকাংশ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, এমন অভিযোগ বিভিন্ন সময়ে কৃষকের কাছ থেকেই পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে পাটগ্রাম উপজেলা নির্বাহী অফিসার, নাজমুল হক সুমন জানান, ভারতীয় ১৪টি গরু সিজার করা হয়েছে এবং গরুসহ অন্যান্য অবৈধ চোরাচালান প্রতিরোধে আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত  রংপুর বার্তা- ২০২২
Theme Customized By Dev Joynal