1. admin@sottosongbad.com : admin :
স্ববিবাহ নিয়ে কী বলছেন ভারতীয় তরুণী - রংপুর বার্তা
মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ১১:৩৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বারহাট্টায় বিএনপির ২৬২ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা -আটক ১ পাটগ্রামে কর্মসৃজন প্রকল্প কাজের উদ্বোধন আগামী ১ জানুয়ারি থেকে শুরু হচ্ছে ২৭তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা চাকরি দেয়ার জন্য টাকা নিয়ে অন্যজনকে নিয়োগ, মাদ্রাসায় তালা সুন্দরগঞ্জ বাজার দোকান মালিক সমিতির নির্বাচনে-সভাপতি-মিজান, সম্পাদক-লেলিন হাতীবান্ধায় সীমান্তে এক যুবককে বিএসএফের বন্দুকের বাট দিয়ে পিটিয়ে মারার অভিযোগ হানিফ কোচের ধাক্কায় সড়কে প্রাণ গেল বাবা-মা ও মেয়ের সিরাজগঞ্জে দিনব্যাপী হজ প্রশিক্ষণ ও হাজী সমাবেশ অনুষ্ঠিত চট্টগ্রামের নন্দনকানন রিয়াজউদ্দিন বাজারে ১৪০০ জনের ফ্রি ব্লাড গ্রুপ নির্ণয় সুজানগরে চুরি হওয়ার পাঁচ ঘন্টার মধ্যে চোর সহ চুরিকৃত মোটরসাইকেল উদ্ধার

স্ববিবাহ নিয়ে কী বলছেন ভারতীয় তরুণী

  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ৩ জুন, ২০২২
  • ৬৭ বার পঠিত

স্ববিবাহ নিয়ে কী বলছেন ভারতীয় তরুণী

স্ববিবাহ, এমন এক বিয়ের অনুষ্ঠান যেখানে একজন মানুষ নিজেকেই বিয়ে করেন। গত কয়েক বছরে পশ্চিমে এ ধরনের বিয়ের প্রবণতা দেখা গেছে। সম্ভবত ভারতে প্রথমবারের মত এমনটা হতে যাচ্ছে।

গুজরাটের পশ্চিম রাজ্যের ভাদোদোরা শহরের একটি মন্দিরে ১১ জুন সন্ধ্যায় ২৪ বছর বয়সী ক্ষমা বিন্দু ঐতিহ্যবাহী হিন্দু বিয়ের রীতিতেই নিজেকে বিয়ে করতে যাচ্ছেন।

ক্ষমা বিন্দু সেদিন বিয়ের লাল পোশাকে সজ্জিত হবেন, হাতে দেবেন মেহেদি এবং সিঁথিতে সিঁদুর দিয়ে নববধূ হিসেবে পবিত্র আগুনের চারপাশে সাতবার প্রদক্ষিণ করবেন। অর্থাৎ সব বৈবাহিক আচার ও রীতিনীতি তিনি পালন করবেন।

স্ববিবাহ নিয়ে কী বলছেন ভারতীয় তরুণী
ক্ষমা বিন্দুর স্ববিবাহের বিয়ের কার্ড
শুধু বিয়েই নয়, হলুদের মতো প্রাকবিবাহের আচারও তার বিয়েতে পালিত হবে, যেখানে কনেকে হলুদ লাগানো হবে, সংগীত বাজতে থাকবে। এমনকি বিয়ের পর দুই সপ্তাহের হানিমুনে গোয়া যাবেন তিনি।

এর প্রতিটি উদযাপনের একমাত্র অনুপস্থিত উপাদানটি হবে একটি বর। কারণ বিন্দু নামের এই ভারতীয় নারী নিজেকেই বিয়ে করতে যাচ্ছেন। যা সম্ভবত ভারতের ইতিহাসে প্রথম স্ববিবাহের ঘটনা।

নিজেকে বিয়ে করা নিয়ে বিন্দু বলেছেন, তিনি আত্মপ্রেমে জীবন উৎসর্গ করবেন।

তার মতে স্ববিবাহ হলো নিজের জন্য এক জীবনধারা, জীবিকা বেছে নেয়ার প্রতিশ্রুতি। যা একজন ব্যক্তিকে সবচেয়ে জীবন্ত, সুন্দর ও গভীরভাবে সুখী ব্যক্তিতে পরিণত করবে।

বিন্দুর সৌভাগ্য যে তিনি এমন পরিবারে বেড়ে উঠেছেন, যে পরিবার নতুন কিছু গ্রহণ করতে আপত্তি করে না। এরই মধ্যে তার পরিবার তাকে আশীর্বাদ দিয়েছেন। তার বন্ধুবান্ধবও বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন।

বিন্দু জানান, তার মা বিন্দুর স্ববিবাহ নিয়ে বলেছেন, যতক্ষণ এটি আমাকে খুশি করবে, ততক্ষণ এতে তাদের আপত্তি নেই।

নিজেকে বিয়ে করার ধারণাটি প্রথম আসে আমেরিকান সিরিজ ‘সেক্স অ্যান্ড দ্য সিটি’ থেকে। টেলিভিশন সিরিজের জনপ্রিয় চরিত্র ক্যারি ব্র্যাডশো প্রথম এটি তুলে ধরেছিলেন। কিন্তু সেটা ছিল নিছক কমেডি সিরিজ।

স্ববিবাহ নিয়ে কী বলছেন ভারতীয় তরুণী
সলোগামির প্রথম ধারণা আসে সেক্স অ্যান্ড দ্য সিটি থেকে
এরপর এমন স্ববিবাহের ঘটনা বিশ্বে শত শত ঘটেছে। এর বেশির ভাগই ছিলেন অবিবাহিত নারী। নববধূরা আদিম বিবাহের গাউন পরে হেঁটেছেন, একটি ফুলের তোড়া নিয়ে হেঁটেছেন। কখনও কখনও পরিবার ও বন্ধুরাও তাদের উৎসাহ দিয়েছেন।

৩৩ বছর বয়সী ব্রাজিলিয়ান মডেল ক্রিস গালেরা নিজেকে বিয়ে করার তিন মাস পরে আবার নিজেকে তালাকও দিয়েছিলেন। কারণ তার থেকেও অসাধারণ কাউকে খুঁজে পেয়েছিলেন। ফলে নিজের সঙ্গে নিজের বিয়ের বিচ্ছেদ তাকে করতেই হয়।

স্ববিবাহ নিয়ে কী বলছেন ভারতীয় তরুণী
নিজেকে বিয়ে করে আবার তালাকও দিয়েছেন ক্রিস গালেরা
এরপরেও বলতে হবে শত শত স্ববিবাহের মধ্যেও বিন্দুর স্ববিবাহের ঘটনা বিশেষ কিছু। কারণ তিনিই প্রথম ব্যক্তি, যিনি নিজেকে নিজে বিয়ে করার জন্য পবিত্র আগুনের চারপাশে সাতবার ঘুরবেন।

তবে মনোবিশেষজ্ঞরা স্ববিবাহের ক্ষেত্রে একমত হতে পারছেন না।

চন্ডীগড় শহরের পিজিআইএমইআর হাসপাতালের সাবেক ডিন ও মনোবিজ্ঞানের অধ্যাপক ডা. সবিতা মালহোত্রা বলেন, ‘আমার কাছে এটি খুব অদ্ভূত ধারণা মনে হচ্ছে।

‘প্রত্যেকেরই স্ব-প্রেম আছে। আত্ম-ভালোবাসা প্রদর্শনের জন্য আপনাকে এটি ভেঙে ফেলতে বা কোনো প্রতিরূপ তৈরি করতে হবে না। এটি আমাদের সবার অভ্যন্তরীণ ব্যাপার। বিয়ে হলো দুটি সত্তাকে একত্রিত করা। ’

স্ববিবাহ নিয়ে কী বলছেন ভারতীয় তরুণী
মনোবিজ্ঞানী মালহোত্রা বলছেন, বিয়ে হল দুটি সত্তাকে একত্রিত করা
ক্ষমা বিন্দুর স্ববিবাহ নিয়ে এরই মধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও শুরু হয়েছে বিতর্ক। কেউ কেউ বিন্দুর এমন সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়েছেন। অনেক নেটিজেন মনে করছেন, তিনি অনেকের অনুপ্রেরণা হবেন।

তবে অনেকেই একাকিত্বের ধারণার বিষয়ে একমত হতে পারছেন না। টুইটারে একজন নারী বলছেন, যদি অন্য কেউ জড়িত না থাকে তবে বিয়ের দরকার কী ছিল। অন্য আরেকজন বলছেন, তার ধারণা বিন্দু পারিবারিক দায়িত্ব থেকে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছেন।

এ খবর নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও শুরু হয়েছে বিতর্ক। কেউ কেউ তাকে সাধুবাদ জানিয়েছেন যে তিনি অনেকের কাছে অনুপ্রেরণা হবেন, কিন্তু বেশির ভাগ লোকই কেবল একাকিত্বের ধারণাটিকে ঘিরে তাদের মাথা গুটিয়ে নেয়ার চেষ্টা করেছিল।

কেউ কেউ স্ববিবাহকে একটি উদ্ভট ও দুঃখজনক কাজ বলে সমালোচনা করছেন। অনেকে এ ঘটনার জন্য দীর্ঘস্থায়ী নার্সিসিজমকেই দায়ী করছেন।

তবে বিন্দু বলছেন, তার সমালোচকদের কেবল একটি কথাই তার বলার আছে। আমি যাকে চাই তাকেই বিয়ে করব। এটা আমার সিদ্ধান্ত, আমি বিয়ে করতে পারি একজন পুরুষ বা নারী বা নিজেকে। নিজেকে বিয়ে করার মাধ্যমে আমি একাকিত্বকে স্বাভাবিক করতে চাই। আমি সবাইকে বলতে চাই, আপনি একাই পৃথিবীতে আসেন, একাই পৃথিবী ছেড়ে চলে যান। তাহলে আপনার থেকে কে আপনাকে বেশি ভালোবাসতে পারে? আপনি যদি পড়ে যান তবে আপনার নিজেকেই আপনাকে তুলতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত  রংপুর বার্তা- ২০২২
Theme Customized By Dev Joynal